টুকরো খবর, হ্যাকিং

সাইবার আক্রমণের অভিযোগে ভারতীয় দুই হ্যাকার গ্রেফতার

বাংলাদেশ এবং ভারতের মধ্যকার সাইবার যুদ্ধের সূত্র ধরে ভারতীয় দুই হ্যাকারকে গ্রেফতার করেছে বলে সংবাদ প্রকাশ করেছে ভারতীয় হ্যাকিং নিউজ পোর্টাল হ্যাকিংনিউজ.ইন। পোর্টালটি জানিয়েছে, বাংলাদেশী ওয়েবসাইটগুলোতে সাইবার আক্রমণের অভিযোগে ভারতীয় হ্যাকার গ্রুপ ইন্ডিশেলের প্রতিষ্ঠাতা ডার্ক ওলফ হেলস অ্যাঞ্জেল এবং কোড ব্রেকার লাকী নামে দুই হ্যাকারকে গ্রেফতার করেছে ভারতীয় কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সেন্ট্রাল ব্যুরো অব ইন্টেলিজেন্স বা সিবিআই। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর ওয়েবসাইটে আক্রমণের অভিযোগে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

পোর্টালটির তথ্যানুযায়ী, ভারতের হায়দরাবাদ থেকে এ দুই হ্যাকারকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাদেরকে ব্যাঙ্গালুরে নিয়ে যায় আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা। বাংলাদেশী হ্যাক হওয়া ওয়েবসাইটগুলো থেকে আইপি ঠিকানা সংগ্রহ করে হ্যাকারদের শনাক্ত করা হয়। ইন্ডিশেলের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা হ্যাকার অতুল দুভেদিও শীর্ষ দুই হ্যাকার গ্রেফতারের খবর নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরেই সাইবার উত্তেজনা চলছিল ভারত এবং বাংলাদেশী হ্যাকার গ্রুপগুলোর মধ্যে। একে অন্য দেশের ওয়েবসাইটগুলোতে চলছিল আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণ। এর মধ্যে বাংলাদেশী হ্যাকাররা ভারতীয় ওয়েবসাইট আক্রমণ করছিল সীমান্তে নীরিহ বাংলাদেশী হত্যা বন্ধের দাবীতে। আর ভারতীয় হ্যাকাররা নিজ দেশের ওয়েবসাইটে আক্রমণের প্রতিবাদে গণহারে বাংলাদেশী ওয়েবসাইটগুলোতে আক্রমণ শুরু করে। বিষয়টি বেশ আলোচনায় আসে যখন বাংলাদেশী হ্যাকাররা ঘোষণা দেন তাঁরা ২০ হাজারেরও বেশি ভারতীয় ওয়েবসাইট হ্যাকিং করেছেন।

এদিকে বাংলাদেশী হ্যাকার গ্রুপ ব্ল্যাকহ্যাট হ্যাকারসের অ্যাডমিন বিডি অ্যাক্সটর প্রিয় টেক কে বলেন, আমরা এতদিন ধরে যে সাইবার যুদ্ধ পরিচালনা করেছি সেটি ছিল সীমান্ত হত্যা বন্ধের দাবীতে। আমরা ভারত সরকারের কাছে আমাদের দাবী সুষ্ঠুভাবে তুলে ধরতে পেরেছি আমাদের নতুন ধরণের প্রতিবাদের মাধ্যমে। ফলশ্রুতিতে ভারত সরকার সীমান্ত হত্যা বন্ধে পূর্ণ আশ্বাস দিয়েছে। আমরা বলতে পারি, যে উদ্দেশ্যে আমাদের সাইবার যুদ্ধ শুরু হয়েছিল তা অনেকটাই সফল। এখন আমরা ভারত সরকারের কাছ থেকে আরেকটি আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেখতে চাই, সীমান্তে আর কোন লাশ নয়। তবে আনুষ্ঠানিক কোন ঘোষণা না পর্যন্ত আমরা সাইবার যুদ্ধ চালিয়ে যাবো। -  প্রিয়টেক অবলম্বনে

টেকপৃথিবী

টেকপৃথিবী সম্পর্কে

লেখক নিজের সম্পর্কে কোন তথ্যই প্রদান করেন নি।